May 30, 2024, 3:10 pm

নোটিশ :

জরুরি ভিত্তিতে সারাদেশে জেলা ও উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে আগ্রহী প্রার্থীরা যোগাযোগ করুন।

নাটোরে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীকে অপহরণ কাজে ব্যবহৃত মাইক্রোবাস উদ্ধার ; গ্রেফতার ১

নাটোরে উপজেলা চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীকে অপহরণ কাজে ব্যবহৃত মাইক্রোবাস উদ্ধার ; গ্রেফতার ১

মো: রাজিবুল ইসলাম বাবু বিশেষ প্রতিনিধি:-

নাটোরের সিংড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন পাশাকে অপহরণের কাজে ব্যবহৃত সেই কালো রংয়ের মাইক্রোবাস সহ আতাউর রহমান নামে মামলার এক আসামীকে গ্রেফতার করেছেন নাটোর জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ।

নাটোরে সিংড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন পাশা এবং তার দুই সহযোগীকে অপহরণ কাজে ব্যবহৃত সেই কালো রংয়ের হাইস মাইক্রোবাস যাহার রেজিঃ নং ঢাকা মেট্রো-চ ৫৬-৫৩৯৫ মাইক্রোবাস টি জব্দ করা হয় ও মাইক্রোবাসে তল্লাশী করে ২টি চায়না চাপাতি, ১টি চায়না টিপ চাকু,১টি বার্মিজ কাটার,২টি দেশীয় রামদা, ২টি স্টিলের পাইপ,২টি স্ট্যাম্প (লাঠি)১টি দেশিয় তৈরি চাপাতি, পলাতক আসামী সুজন ড্রাইভারের ড্রাইভিং লাইসেন্সেসহ গাড়ীর কাগজপত্র, সিংড়া উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মোঃ লুৎফুল হাবিব রুবেল এর অসংখ্য লিফলেট, স্টিকার লিফলেট, ক্যালেন্ডার সম্ভলিত পোস্টার ছবি জব্দ করেছে নাটোর জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশ

এই ঘটনায় আতাউর রহমান নামের একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত আতাউর সিংড়া উপজেলার চকপুর গ্রামের রবিউল্লার ছেলে। ২০ এপ্রিল শনিবার সিংড়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেয়া তথ্য মতে আতাউর রহমানের বাড়ি চাঁদপুর থেকে অপহরণের কাজে ব্যবহৃত কালো রঙের মাইক্রোবাস উদ্ধারপূর্বক জব্দ করা হয়।

২০ এপ্রিল শনিবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে নাটোর পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাদাত হোসেন এই তথ্য জানান। তিনি জানান, গত ১৬ এপ্রিল জেলা নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে মনোনয়নপত্র দাখিল করতে আসা দেলোয়ার হোসেন পাশা এবং তার দুই সহযোগীকে মাইক্রোবাসে করে অপহরণ করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এরপরে দেলোয়ার হোসেন পাশাকে মারধর করে তার গ্রামের বাড়ি সিংড়া উপজেলার পার সাঐল গ্রামে ফেলে রেখে যায়। এই ঘটনায় বাদী হয়ে দেলোয়ার হোসেনের বড় ভাই মজিবর রহমান ১৭ এপ্রিল নাটোর সদর থানায় অজ্ঞাত ২০ জনের নামে মামলা দায়ের করেন।

মামলা পর সিসিটিভি ফুটেজ বিশ্লেষণ করে ১৭ এপ্রিল ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে সারোয়ার হোসেন সুমন এবং নাজমুল হক বাবুকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করে।

সংবাদটি শেয়ার করতে ক্লিক করুন




© All rights reserved © 2020 alokitobhorerbarta.com

Desing & Developed BY ThemesBazar.Com